প্রকল্পের নাম: যুবশ্রী

'যুবশ্রী' প্রকল্পের মাধ্যমে রাজ্যের শ্রম দপ্তরের অধীন এমপ্লয়মেন্ট ব্যাংক এ নথিবদ্ধ অষ্টম শ্রেণি উত্তীর্ণ ১৮ থেকে ৪৫ বছর বয়সী যুবক যুবতীরা মাসে ১৫০০ টাকা হারে ভাতা পান। 
২০১৩ সালের ৩ অক্টোবর রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় যুবশ্রী প্রকল্পের সূচনা করেন। এই প্রকল্পে মােট উপভােক্তার সংখ্যা ২.৬৬ লক্ষ ও মাসিক উপভােক্তার সংখ্যা সর্বোচ্চ ১ লক্ষ । 

নথিভুক্ত যুবক-যুবতীরা যাতে নানা প্রশিক্ষণের মাধ্যমে নিজেদের দক্ষতা বাড়াতে পারেন বা তাঁদের শিক্ষা চালিয়ে নিয়ে যেতে পারেন সেই উদ্দেশ্যেই এই আর্থিক সহায়তা দেওয়া হচ্ছে। এই প্রকল্পের অধীন ভাতা-প্রাপকদের প্রতি ৬ মাস অন্তর প্রশিক্ষন সংক্রান্ত তথ্য এবং তিনি এখনও প্রকল্পের সমস্ত প্রকল্পের যোগ্যতাবলীর অধিকারী কিনা সেই সংক্রান্ত একটি স্ব-ঘোষণা জমা করতে হয়। এই প্রকল্পের  সহায়তা নিয়ে যাঁৱচাকরি পাবেন বা স্বনির্ভর হবেন তারা আর এই আর্থিক সহায়তা পাবেন না। পরিবর্তে নতুন চাকরিপ্রার্থীরা পর্যায়ক্রমিকভাবে এই প্রকল্পের সুবিধা পাবেন। 

• কারা আবেদনের যোগ: 'চাকরিপ্রার্থী' হিসেবে রাজ্যের শ্রম দপ্তরের এমপ্লয়মেন্ট ব্যাংক-এ নাম নথিভুক্ত করানাে এই রাজ্যে বসবাসকারী বেকার যুবক-যুবতীরা এই সুযােগ পাবেন। ন্যূনতম অষ্টম শ্রেণি উত্তীর্ণ হতে হবে। এর বেশি শিক্ষাগত যোগ্যত্রাও থাকতে পারে । যে বছর প্রার্থী এই প্রকল্পের আওতায় আসবেন সেই বছরের ১ এপ্রিল তাঁর বয়স ১৮ থেকে ৪৫ বছরের মধ্যে থাকতে হবে। রাজ্য বা কেন্দ্রীয় সরকারের (স্পনসর্ড ) কোনও স্বনিযুক্তি প্রকল্পের অধীন কোনও আর্থিক সহায়তা বা ঋণ গ্রহণ করেননি এমন যুবক-যুবতীরাই আবেদন করতে পারবেন। পরিবারে মাত্র একজন সদস্যই এই প্রকল্পের আওতায় আর্থিক সহায়তার সুবিধা পেতে পারেন। 

* দপ্তর: শ্রম দপ্তর।

* যােগাযােগ: স্থানীয় এমপ্লয়মেন্ট এক্সচেঞ্জের মাধ্যমে এমপ্লয়মেন্ট ব্যাংকে নাম নথিভুক্ত করা যাবে। বর্তমানে অন-লাইনে প্রার্থীরা নিজেরাই ফর্ম পূরণ করতে পারবেন। এমপ্লয়মেন্ট ব্যাংকের ওয়েবসাইট employmentbankwb.gov.in
(জেনে নিন, পশ্চিমবঙ্গের ৪১ টি জনকল্যাণমূলক সরকারি প্রকল্পের প্রাপ্ত সুযোগ সুবিধে কোথা থেকে কিভাবে পেতে পারেন)

Comments

Popular posts from this blog

প্রকল্পের নাম: সবলা

প্রকল্পের নাম: আমার ফসল, আমার গাড়ি